..:: বিজ্ঞাপন ::..

আগরতলা, ২৭মে।। চলতি অর্থ বছরে পশ্চিম জেলায় ১৭৫২ জনকে মাছ চাষের আওতায় আনা হবে। এরমধ্যে ৩৯০ জনকে গলদা চিংড়ি চাষে এবং ১৮০ জনকে পাবদা মাছ চাষে যুক্ত করা হবে। চাষীদের মাছের পোনা, চুন, খৈল, খাদ্য ও অন্যান্য সামগ্রী দিয়ে সহায়তা করতে ব্যয় হবে ১ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা। তাছাড়া এবছর পশ্চিম জেলার ২৯০৫ জনকে মাছ চাষের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। পশ্চিম ত্রিপুরা জিলা পরিষদের সভাগৃহে আজ পরিষদের কৃষি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভায় মৎস্য দপ্তরের আধিকারিক বিজয় কুমার রায় এই তথ্য জানান। স্থায়ী কমিটির সভাপতি তপন কুমার দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জিলা পরিষদের সভাধিপতি দিলীপ কুমার দাস, সহকারী সভাধিপতি মনমোহিনী দেবনাথ, সদস্যগণ ছাড়াও সংশ্লিষ্ট দপ্তরের আধিকারিকগণ উপস্থিত ছিলেন। কৃষি দপ্তরের উপ অধিকর্তা অরুণ ভট্টাচার্য সভায় জানান, খারিফ মরশুমে এই জেলায় ধান, পাট, তিল, ভুট্টা ইত্যাদি চাষ করার জন্য এখন পর্যন্ত ১৩ মেঃ টন বীজ বন্টন করা হয়েছে। অতিবর্ষণের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ ১৭০৮ জন কৃষককে খুব শীঘ্রই সহায়তা করা হবে। সভাধিপতি দিলীপ কুমার দাস গৃহীত প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।