..:: বিজ্ঞাপন ::..

আগরতলা, ৭ জুন।। খাদ্য, জন সংভরণ ও ক্রেতাস্বার্থ দপ্তরের অধিকর্তা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন যে, গণবন্টনের আওতাধীন সর্বস্তরের ভোক্তা সাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, গণবন্টন ব্যবস্থার মাধ্যমে ভর্তুকীযুক্ত কেরোসিন সরবরাহ ব্যবস্থা ধীরে ধীরে সংকোচিত করার লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় খাদ্য মন্ত্রণালয় বিগত কয়েক বছর যাবৎ রাজ্যের জন্য কেরোসিনের মাসিক বরাদ্দ ধাপে ধাপে কমিয়ে বর্তমানে ২৪৪৮ কিলোলিটার প্রতিমাসে করা হয়েছে, যেখানে গত জানুয়ারী, ২০১৬ইং সালে রাজ্যের জন্য মাসিক বরাদ্দ ছিল ৩২০০ কিলোলিটার। যার ফলশ্রুতিতে গত ৭ই ডিসেম্বর, ২০১৬ইং তারিখে প্রত্যেক মহকুমার জন্য বরাদ্দ কেরোসিন কেবলমাত্র রেশনসপ ডিলারের মাধ্যমেই বিলি বন্টন করা হবে, অর্থাৎ হকারদের মাধ্যমে কেরোসিন বিলিবন্টন ব্যবস্থার উপর দপ্তর স্থগিতাদেশ জারী করেন। বর্তমানে কোন মহকুমায় হকারদের মাধ্যমে কেরোসিন বিলি বন্টন করা হয় না।