..:: বিজ্ঞাপন ::..

নোটিশ
  • Lack of access rights - File '/images/News24Tripura-Images/12-02-13/womenkarmi.jpg'
  • Lack of access rights - File '/images/News24Tripura-Images/12-02-13/saraswati.jpg'

আগরতলা, ১৩ ফেব্রুয়ারী।। সন্ধ্যের পর কেমন যেন নিস্তব্ধতা। একমাসের মিছিল, মিটিং, ভাষণ, শ্লোগান, ভোটগান উধাও। চায়ের টেবিলে জবরদস্ত আলোচনা। নিজের মনের মনিকোঠায় লালিত স্বপ্ন সাকার করতে প্রস্তুত গণদেবতারা। কেউ বা পরিবর্তন আর কেউ বা প্রত্যাবর্তন প্রত্যাশী। গণতন্ত্রের প্রধান উৎসব নির্বাচন। আর রাত পোহালেই উৎসবের সূচনা। বিকেল ৪টা অবধি চলবে ভোট গ্রহণ। এই পর্ব শেষে নিরাপত্তা বেষ্টিত ভোটকর্মীরা পৌঁছে যাবে মহকুমার নির্ধারিত স্ট্রং রুমে। টানা ১৫ দিন বৈদ্যুতিন ভোট যন্ত্র পাহারায় থাকবেন বর্হিরাজ্য থেকে আসা আধা সামরিক বাহিনী। ২৮ ফেব্রুয়ারী ভোট গণনা। এদিন বেলা ১১টার মধ্যেই জানা যাবে ভোটের ফলাফল। এরপর শুরু হবে সরকার গঠনের তোড়জোর।

বিস্তারিত পড়ুন...

 

আগরতলা, ১৩ ফেব্রুয়ারী।। প্রথমবারের মতো ভোটের কাজে নিযুক্ত হল মহিলা ভোটার কর্মীরা। বুধবার উমাকান্ত স্কুল থেকে ভোটের সামগ্রী বুঝে নিয়ে নিজ নিজ ভোট কেন্দ্রে পৌঁছে যায় মহিলা ভোটার কর্মীরা। সারা দেশে মহিলা ভোটার কর্মী নিযুক্ত করা নিঃসন্দেহে নজীর স্থাপন করেছে। আগামীকাল সকাল থেকে তারা শুরু করবে ভোটের কাজ। প্রত্যেক ভোট গ্রহণের রুমে একজন করে মহিলা পর্যবেক্ষকও নিয়োগ করা হয় নির্বাচন কমিশন থেকে। 

 

 

 

আগরতলা, ১৩ ফেব্রুয়ারী।। একদিকে ভোটের আনন্দ তো অন্যদিকে সরস্বতী পুজোর আনন্দে মেতে উঠেছে গোটা রাজ্য। ২০১৩ সালের নির্বাচন ঘোষণা হবার পর কিছু রাজনৈতিক দল দাবী করেছিল ভোট পিছিয়ে দেবার জন্য। কারণ ভোটের প্রভাব পড়বে পুঁজেতে। ছাত্র ছাত্রীরা তাদের সরস্বতী পূজা করতে পারবে না স্কুলে। কিন্তু শেষে ভোট আর সরস্বতী পুজোর আনন্দে একসাথেই মেতে উঠেছে মানুষ। ভোটের দিন বাজার হাট ঠিক ঠাক ভাবে নাও বসতে পারে, তাই বুধবার সকাল থেকেই জমে উঠে পুজোর বাজার। রাজধানীর সবকটি বাজারেই পুজোর পসরা নিয়ে বসে যায় দোকানীরা। চলে পড়ুয়াদের মূর্তি কেনার ধূম। সব মিলিয়ে পুজোর আনন্দে ও ভোটের আনন্দে একাকার হয়ে উঠে গোটা রাজ্য।