..:: বিজ্ঞাপন ::..

ওয়েব ডেস্ক, ২১ এপ্রিল।। দিনের শুরুতেই উত্তপ্ত ডোমকল। ভোট শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ব্যাপক বোমাবাজি শুরু হয়ে যায় শিরোপাড়ায়। গুলি-বোমার বলি হন সিপিএম কর্মী তহিদুল ইসলাম। গুলিবিদ্ধ হন রিন্টু শেখ ও আখতারুল নামে আরও দুই সিপিএম কর্মী। ঘটনায় সরাসরি তৃণমূলের দিকে আঙুল তুলেছে সিপিএম। সিপিএম-কংগ্রেসের গণ্ডগোলেই দায়ী, পাল্টা দাবি তৃণমূলের। দক্ষিণনগরে বোমার আঘাতে জখম তৃণমূল কর্মী শরিফুল ইসলাম। অশান্তির জেরে ডোমকলের ১১টি বুথে পুনর্নিবাচনের দাবি তুলেছেন অধীর চৌধুরী। ডোমকলের স্থানীয় প্রশাসন তৃণমূলের হয়ে কাজ করেছে। ভোটের নিরাপত্তায় থাকা বিএসএফের সঙ্গেও স্থানীয় তৃণমূলের গোপন আঁতাত রয়েছে। সেকারণেই ডোমকলে নির্বাচনী হিংসায় মৃত্যু হয়েছে এক জনের। অভিযোগ অধীর চৌধুরীর। যেসব জায়গায় অশান্তি হয়েছে সেই সব জায়গায় পুনর্নির্বাচনের দাবি জানাবেন, বললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।
ওয়েব ডেস্ক, ২১ এপ্রিল।। ভোটে অশান্তি, হিংসা এড়ানো গেল না নদীয়ায়। ধারাপুরে বোমাবাজি, করিমপুরে সিপিআইএম-তৃণমূল সংঘর্ষের সঙ্গেই গয়েশপুরেও মার খেলেন বাম এজেন্টরা। ভোটের হিংসার হাত থেকে রেহাই পেলেন না শিক্ষক-অধ্যাপকও। নদীয়ার চাকদায় ভোট দিতে গিয়ে আক্রান্ত হন প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক, তাঁর শিক্ষিকা স্ত্রী ও মেয়ে। চাকদা কলেজ বুথে ভোট দিতে যাওয়ার সময় এই ঘটনা ঘটে। লাঠি দিয়ে মেরে হাতের আঙুল ফাটিয়ে দেওয়া হয় শিক্ষকের। চাকদা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন শিক্ষক।
ওয়েব ডেস্ক, ২১ এপ্রিল।। দিনের শুরুতেই বোমাবাজিতে ডোমকলে প্রাণ হারান সিপিআইএম কর্মী তহিদুল ইসলাম। ডোমকলের শিরোপাড়ায় ১৭৬ নম্বর বুথের সামনে ব্যাপক বোমাবাজিতে মৃত্যু হয় তহিদুল ইসলাম নামে ওই সিপিএম কর্মীর। এরপরই এই ঘটনায় জেলাশাসকের কাছে রিপোর্ট তলব করে কমিশন। কমিশনকে রিপোর্টে পুলিস সুপার জানান, “বোমাবাজি নয় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মৃত্যু হয়েছে ওই সিপিএম কর্মীর।” যদিও, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাফ জানিয়েছেন, ডোমকলের ঘটনায় তৃণমূল কোনওভাবেই জড়িত নয়। তবে উদ্বিগ্ন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জাইদি দিনের শেষে ফোন করেন রাজ্যের CEO সুনীল গুপ্তাকে। খোঁজখবর নেন ডোমকলের ঘটনা সম্পর্কে। বোমাবাজিতে তহিদুল ইসলামের মৃত্যুর পরই, ডোমকলের শিরোপাড়ায় ভোট বন্ধের দাবি তোলেন গ্রামবাসীরা।