..:: বিজ্ঞাপন ::..

জিরানীয়া, ৩ জুলাই।। রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করেই সাতদিন ব্যাপী আয়োজিত খার্চি উৎসবে সামিল হচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ উৎসব ও মেলা উপলক্ষ্যে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর কৃষ্ণমালা মঞ্চে আয়োজন করেছে বর্ণময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুলে ধরা হচ্ছে রাজ্যের মিশ্র সংস্কৃতি। উৎসবের প্রথম দিন সকালে কৃষ্ণমালা মঞ্চে আয়োজিত হয় উপজাতি লোকনৃত্য, উপজাতি লোক সংগীত, জাদুকলিজা, আদিবাসী বাউল সংগীত, পালা কীর্তন ও ধামাইল। অনুষ্ঠানগুলিতে অংশ নেন যতীন্দ্র কুমার উচ্চ বিদ্যালয়, প্রতাপগড় লোকরঞ্জন শাখা, মান্দাই এবং গাবর্দির লোক শিল্পীগণ। বিকালে হাবেলী মুক্ত মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় শিশু উৎসব। বিভিন্ন বিদ্যালয় ও সাংস্কৃতিক সংস্থার শিশু শিল্পীর এই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। সন্ধ্যায় কৃষ্ণমালা মঞ্চে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের শিল্পীবৃন্দ। সমবেত সংগীত পরিবেশন করে গীতিমাল্য। পার্শ্ববর্তী রাজ্য মণিপুর থেকে আসা শিল্পীরা মার্শাল আর্ট প্রদর্শন করেন।
কৈলাসহর, ৩ জুলাই।। পণ্য ও পরিষেবা কর-এর উপর এক সচেতনতামূলক কর্মশালা সম্প্রতি কৈলাসহরের ঊনকোটি কলাক্ষেত্রে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় বিভিন্ন স্তরের ব্যবসায়ী ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালার উদ্বোধন করে কৈলাসহর পুর পরিষদের ভাইস চেয়ারপার্সন মনীষ সাহা পণ্য ও পরিষেবা কর-এর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। আলোচনায় অংশ নিয়ে সুপারিন্টেনডেন্ট অব টেক্সেস কবুল রবিদাস বলেন, রাজ্যে ইতিমধ্যে ২১টি মহকুমায় এইরকম কর্মশালা আয়োজিত হয়েছে। কর্মশালায় প্রজেক্টারের মাধ্যমে জি এস টি-এর বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেন রাজস্ব দপ্তরের আধিকারিক মঙ্গল দেববর্মা।
সোনামুড়া, ৩ জুলাই।। নলছড় ব্লকের বিভিন্ন পঞ্চায়েত ও এডিসি ভিলেজে ষোলটি রাজীব গান্ধী সেবা কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। এম জি এন রেগায় প্রতিটি নির্মাণ কাজের জন্য ১০ লক্ষ্য টাকা করে মোট ১ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। ব্লকের বড়দোয়াল, চন্দনমুড়া, খাসচৌমুহনী, খেদাবাড়ী, লক্ষণঢেটা, পশ্চিম নলছড়, পোয়াংবাড়ী, পূর্ব দুর্লভনারায়ণ, রাজীবনগর, রাঙ্গামাটি, তৈজিলিং এবং তক্সাপাড়া পঞ্চায়েত এবং ইন্দ্রকুমার পাড়া, রামপদপাড়া, পদ্মিনীনগর ও কলিরাম এডিসি ভিলেজে এই রাজীব গান্ধী সেবাকেন্দ্রগুলি নির্মাণ করা হচ্ছে।