..:: বিজ্ঞাপন ::..

ওয়েব ডেস্ক, ৪ ডিসেম্বর।। এমপি বিড়লা স্কুলে বিক্ষোভকারী অভিভাবকদের ছত্রভঙ্গ করতে ‘লাঠিচার্জ’ করল পুলিস। ঘটনাকে ঘিরে সোমবার সন্ধ্যায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিল জেমস লং সরণী। মহিলাদের ওপরেও পুলিস এলোপাথাড়ি লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। খুদে পড়ুয়ার যৌন নিগ্রহের প্রতিবাদে সোমবার সকাল থেকেই স্কুল চত্বরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন অভিভাবকরা। অভিযুক্ত ২জনকে গ্রেফতারির দাবিতে চলতে থাকে বিক্ষোভ। চাপের মুখে পড়ে কিছুটা হলেও নতিস্বীকার করে স্কুল কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্ত পিওন মনোজকে সাসপেন্ড করা হয়। কিন্তু তাতে চিঁড়ে ভেজেনি। অভিভাবকরা স্পষ্ট জানিয়ে দেন, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা না হলে বিক্ষোভ চলতে থাকবে। জেমস লং সরণী অবরোধ করে জারি থাকবে বিক্ষোভ। স্কুলের ভিতরেই আটকে থাকেন শিক্ষকরা। সন্ধ্যা গড়াতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। বিক্ষোভকারী অভিভাবকদের হঠানোর চেষ্টা করলেই পুলিসের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু হয় অভিভাবকদের। অভিযোগ, এরপরই লাঠিচার্জ করতে থাকে পুলিস। মহিলাদেরও মাটিতে ফেলে মারা হয় বলে অভিযোগ। পুলিসের লাঠিচার্জ বিক্ষোভে ঘি ঢালে। রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন নির্যাতিতার বাবা। তাঁর অভিযোগ, ‘সেপ্টেম্বরে এফআইআর করেও, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেনি পুলিস। অথচ মহিলাদের ওপর লাঠিচার্জ করল? এটি কোন গণতন্ত্র? ‘ তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, এই ভাবে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না। অভিযুক্তের কড়া শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন জারি থাকবে। অভিভাবকদের ওপর লাঠিচার্জের ঘটনায় নিন্দার ঝড় সব মহলে।
ওয়েব ডেস্ক, ১৫ অক্টোবর।। বিমানের খাবারের মানের খাবার দেওয়ার ভাবনাচিন্তা করছে রেল। দুটি ট্রেনে তা পরীক্ষামূলকভাবে চালুও করা হয়েছে। তবে রেলের খাবার নিয়ে এখনও অভিযোগের শেষ নেই। এর মধ্যেই বিপত্তি। ভারতের প্রথম সেমি হাইস্পিড ট্রেন তেজস এক্সপ্রেসের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লেন ২৪ যাত্রী। এদের ৩ জনের অবস্থা এতটাই খারাপ যে তাদের আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়েছে। রেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রবিবার সকালে কারমালি-মুম্বই তেজস এক্সপ্রেসের ২৯০ যাত্রীকে ব্রেকফাস্ট দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বারোটা নাগাদ অনেকেই বলতে থাকেন তাদের শরীর খারাপ করছে। অনেকেই বমি বমি পাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। ক্রমশ সংখ্যাটা বাড়তে থাকে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে মহারাষ্ট্রের চিপলুন স্টেশনে অসুস্থ যাত্রীদের নামিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অসুস্থ যাত্রীদের মধ্যে ৩ জনকে আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়। যাত্রীদের ভেজ ও ননভেজ দুধরনেরই খাবার দেওয়া হয়েছিল। ঠিক কোথা থেকে বিষক্রিয়া হল তা এখনও স্পষ্ট করে জানাতে পারেনি রেল। কিন্তু প্রশ্ন থেকেই গেল, তেজসের মতো একটি এলিট ট্রেনের খাবার খেয়ে যদি ওই অবস্থা হয় তা হলে অন্যান্য ট্রেনের খাবারের অবস্থা কেমন।
ওয়েব ডেস্ক, ১৫ অক্টোবর।। সুস্থ আছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। বাড়িতেই রয়েছেন তিনি। দীর্ঘদিন দিন ধরে শারীরিক কারণে নিজেকে সক্রিয় রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে নিয়েছেন বুদ্ধদেববাবু। হাঁটাচলাও বারণ। তবে নিয়ম করে আলিমুদ্দিনে যান। শুক্রবার রাজ্য পার্টি অফিসেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। বুদ্ধদেববাবুর নাক থেকে রক্ত বেরোচ্ছিল। দলের কর্মীরাই চিকিত্সককে খবর দেন। পরে হাজির হন তাঁর ব্যক্তিগত চিকিত্সক। হাসপাতালে ভর্তি করার তোড়জোর চলছিল। তবে বাধা দেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। বাড়িতেই বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের চিকিত্সা চলছে। তিনি আপাতত সুস্থ আছেন।