সড়ক সুরক্ষা সচেতনতা অভিযান শীর্ষক আলোচনাচক্রে মুখ্যমন্ত্রী : সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে সরকার বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে
সড়ক সুরক্ষা সচেতনতা অভিযান শীর্ষক আলোচনাচক্রে মুখ্যমন্ত্রী : সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে সরকার বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে

আগরতলা, ১ সেপ্টেম্বর।। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব সড়ক দুর্ঘটনা রোধে প্রতিটি বাড়ি থেকে সচেতনতা তৈরী করার জন্য রাজ্যবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, উপর থেকে নীচ পর্যন্ত এই সচেতনতা তৈরী হলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই হ্রাস পাবে। সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে রাজ্য সরকারও বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী শ্রীদেব আজ রবীন্দঈর শতবার্ষিকী ভবনের ১নং প্রেক্ষাগৃহে পরিবহন দপ্তর আয়োজিত ‘সড়ক সুরক্ষা সচেতনতা অভিযান’ শীর্ষক এক আলোচনাচক্রে প্রধান অতিথির ভাষণে এই আহ্বান জানান। আলোচনাচক্রে সভাপতিত্ব করেন পরিবহন মন্ত্রী প্রণজিৎ সিংহরায়। প্রদীপ জ্বেলে এই আলোচনাচক্রের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, জীবন এক অমূল্য সম্পদ। একবার জীবনহানি হলে সেই জীবন ফিরে আসে না। তাই সড়ক সুরক্ষায় সর্বাগ্রে চাই জনসচেতনতা। এর বিকল্পও নেই। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, পথ দুর্ঘটনা রোধে প্রত্যেক মা-বাবার উচিত ঘর থেকেই ছেলে মেয়েদের সচেতন করে তোলা। প্রতিটি বিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাগণকেও এবিষয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতন করতে হবে। তিনি বলেন, পূর্বতন সরকার সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে সঠিক কোন পদক্ষেপ নেয়নি। যার জন্য আজ আমাদের ভুগতে হচ্ছে। বর্তমান রাজ্য সরকার সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে এক বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে।

আলোচনাচক্রের পর মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব পতাকা নেড়ে রবীন্দ্রভবন প্রাঙ্গণ থেকে এক র‍্যালীর সূচনা করেন। এই র‍্যালীর পুরোভাগে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব, পরিবহন মন্ত্রী প্রণজিৎ সিংহরায়, মেয়র প্রফুল্লজিৎ সিনহা, রাজ্য পুলিশের ডিজি এ কে শুক্লা, টি আর টি সি’র চেয়ারম্যান দীপক মজুমদার, পরিবহন দপ্তরের প্রধান সচিব এল এইচ ডার্লং ছাড়াও সি আর পি এফ, টি এস আর, আসাম রাইফেলস এর জওয়ানগণ এবং বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও গাড়িচালকগণ অংশ নেন। এই র‍্যালী শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা শেষে পুনরায় রবীন্দ্রভবন প্রাঙ্গণে এসে সমাপ্ত হয়। 

আরো পড়ুন

Advertisement