ত্রিপুরার সাথে রবীন্দ্রনাথের সম্পর্ক ছিল নিবিড় : মুখ্যমন্ত্রী
ত্রিপুরার সাথে রবীন্দ্রনাথের সম্পর্ক ছিল নিবিড় : মুখ্যমন্ত্রী

আগরতলা, ৮ মে।। আজ ২৫শে বৈশাখ। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯তম জন্মজয়ন্তীতে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের উদ্যোগে রবীন্দ্র কাননে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব রবীন্দ্রনাথের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে রাজ্য সাংস্কৃতিক উপদেষ্টা কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান সুভাষ দেব, তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের সচিব শৈলেন্দ্র সিং, অধিকর্তা রতন বিশ্বাস সহ উপস্থিত অন্যান্যদের রবীন্দ্র প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ নিবেদন করে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব জানান, কোভিড-১৯ এর লকডাউনজনিত পরিস্থিতিতে এখানে আজ ছোট পরিসরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হচ্ছে। রবীন্দ্রনাথ ছিলেন কবি ও দর্শনিক, শিক্ষাবিদ ও স্বাধীনতা সংগ্রামী। তিনি ভারত ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত লিখেছিলেন। আমাদের গর্ব যে রবীন্দ্রনাথ ত্রিপুরার মাটিতে বারবার এসেছেন। ত্রিপুরার সাথে রবীন্দ্রনাথের সম্পর্ক ছিল নিবিড়। আজকের দিনে আমরা অঙ্গীকার নেবো যে, রবীন্দ্রনাথ যে স্বপ্ন দেখেছিলেন স্বভিমানী ভারত, সর্বশ্রেষ্ঠ ভারত সেই দিশাতে আমাদের মাতৃভূমিকে নিয়ে যেতে হবে। তিনি বলেন, কোভিড-১৯ এর কারণে আজ সারা দুনিয়া প্রভাবিত। করোনাকে পরাজিত করার মোকাবিলায় রাজ্যের স্বাস্থ্যকর্মী ও এই কাজের সাথে যুক্ত প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট সকলে দিনরাত পরিশ্রম করে চলেছেন। তাদের এই পরিশ্রম বৃথা যাবে না। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন, তারা সকলেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাবেন। মুখ্যমন্ত্রী শ্রীদেব রাজ্যবাসীকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিভিন্ন স্বাস্থ্য নির্দেশিকাগুলি সতর্কতার সাথে মেনে চলার জন্য আহ্বান জানান। 

আরো পড়ুন

FACEBOOK

Advertisement